বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নে ৫ বছর মেয়াদী ‘স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যান’ গ্রহণ ও ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর পিস এন্ড লিবার্টি’ প্রতিষ্ঠা

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের বার্ষিক অধিবেশন আজ ১৪ জুন ২০২০ রবিবার নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। সিনেটের চেয়ারম্যান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন। স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এই অধিবেশনের আয়োজন করা হয়। জাতীয় সংগীত পরিবেশন, পবিত্র ধর্মগ্রন্থসমূহ থেকে পাঠ, গত সিনেট অধিবেশনের পর থেকে আজ পর্যন্ত দেশ-বিদেশের যে সকল বরেণ্য ব্যক্তিবর্গ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যবৃন্দ মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁদের স্মরণে শোক প্রস্তাব পাঠ, ১-মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন ও মোনাজাতের মাধ্যমে এই অধিবেশন শুরু হয়। 

সিনেটের এই অধিবেশনে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর পিস এন্ড লিবার্টি’-এর প্রস্তাবিত স্ট্যাটিউট অনুসমর্থিত হয়। অধিবেশনে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট ক্যাটাগরিতে জনাব এস. এম. বাহালুল মজনুন, শিক্ষাবিদ হিসেবে অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম এবং বিশিষ্ট নাগরিক হিসেবে বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক ও ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক এ কে এম শামসুজ্জামান খানকে সিন্ডিকেট সদস্য হিসেবে সর্বসম্মতিক্রমে নির্বাচিত করা হয়। এছাড়া, ফাইন্যান্স কমিটিতে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব আতাউর রহমান প্রধানকে মনোনয়ন দেওয়া হয়।

সিনেটের এই বার্ষিক অধিবেশনে মাননীয় সংসদ সদস্য, ডাকসু’র প্রতিনিধিসহ সকল ক্যাটাগরি থেকে ৬৩ জন সিনেট সদস্য অংশগ্রহণ করেন। বয়োজ্যেষ্ঠ ও শ্রদ্ধাভাজন অনেক সিনেট সদস্য সিনেটের চেয়ারম্যান ও  উপাচার্য  অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের মাধ্যমে সবাইকে শুভেচ্ছা জানান এবং অধিবেশনের সাফল্য কামনা করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের চেয়ারম্যান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান তাঁর অভিভাষণে সিনেট সদস্যদের স্বাগত জানান। COVID-19 Pandemic-এ বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন তিনি তাদের আত্মার শান্তি কামনা করেন। এসময় COVID-19  দুর্যোগ মোকাবেলায় চিকিৎসক, নার্স, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, গণমাধ্যমকর্মীসহ যারা সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে ভূমিকা রাখছেন এবং কাজ করছেন তাঁদের প্রতি ১ মিনিট দাঁড়িয়ে গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়।

উপাচার্য জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে নানা পরিকল্পনা ও প্রচেষ্টার মাধ্যমে COVID-19 উদ্ভূত দুর্যোগ মোকাবেলায় আন্তরিকভাবে কাজ করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান। 
তিনি বলেন, বাংলাদেশের সকল দুর্যোগ ও সংকট মোকাবেলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অতীতে যেভাবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে, COVID-19 Pandemic মোকাবেলায়ও সেভাবে কাজ করে যাচ্ছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অনির্ধারিত ছুটিতে অনলাইনসহ বিভিন্ন সম্ভাব্য উপায়ে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রমে সম্পৃক্ত ও সক্রিয় রাখার ব্যাপারে সকল বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের সহকর্মীদের বিশেষ অনুরোধ করা হয়েছে; যাতে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর কম সংখ্যক ক্লাশ নিয়ে পরীক্ষা নেয়া যায়।

সম্প্রতি, ডিনস্ কমিটির সুপারিশের আলোকে সিন্ডিকেট সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীকে স্বাস্থ্যবীমার আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যবীমা ব্যবস্থাপনা নীতিমালা প্রণয়নের জন্য একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

একাডেমিক কাউন্সিলের বিশেষ সভার সিদ্ধান্তক্রমে আপাতত সান্ধ্যকালীন তথা অনিয়মিত একাডেমিক কর্মসূচিতে সকল ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। নীতিমালা প্রণয়নের জন্য একটি উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন কমিটি গঠন করা হয়েছে। দেশে ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের চাহিদা বিবেচনায় নিয়ে এই কমিটি নীতিমালা প্রণয়ন করবে। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামগ্রিক শিক্ষার গুণগত মান এবং ভাবমূর্তি উন্নয়নে সহায়ক হবে।

উপাচার্য বলেন, ‘The Dhaka University Fund’ শীর্ষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব তহবিল গঠনের ব্যাপারে আন্তরিকভাবে প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুবিধামত সময়ে তাঁর সানুগ্রহ উপস্থিতিতে এই তহবিল সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হবে, ইন্শাল্লাহ্।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নে পাঁচ বছর মেয়াদী  ‘স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যান’ (Strategic Plan) গ্রহণ করা হবে। এ ‘স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যান’-এ থাকবে − গবেষণা; শিক্ষার পরিবেশ ও আধুনিকায়ন; প্রশাসনিক দক্ষতা ও সমন্বয়; শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার ও ভবিষ্যৎ, বিশ্ববিদ্যালয় কমিউনিটির উন্নয়ন (শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীদের); বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক নান্দনিক পরিবেশ; প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের শিক্ষা ও প্রশাসনিক কাজে অংশগ্রহণে উৎসাহিতকরণ; নেতৃত্বের উন্নয়ন; স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত ও উৎসাহিত করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ব্যাপী ‘active citizenship উদ্যোগ চালুকরণ; বিশ্ববিদ্যালয়ের র‌্যাংকিং; সর্বোপরি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামগ্রিক কার্যাবলিকে SDGs-2030-এ রূপায়ণ ও ভিশন-২০৪১-এর সাথে তার সমন্বয়সাধন।

যেহেতু সিনেটের এই বার্ষিক অধিবেশনে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের বাজেট উপস্থাপন করা যায়নি বিধায় সেটি উপস্থাপন ও বিবেচনার জন্য সিনেটের এই বার্ষিক সভা আগামী ২৩ জুলাই ২০২০ বৃহস্পতিবার বিকেল ৩.৩০টা পর্যন্ত মুলতবি করা হয়। 

 

(মাহমুদ আলম)
পরিচালক
জনসংযোগ দফতর 
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের চেয়ারম্যান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান আজ ১৪ জুন ২০২০ রবিবার নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের বার্ষিক অধিবেশনে ভাষণ প্রদান করেন ।  

 

Latest News
  • ঢাবি উপাচার্যের বিজয় মাসের শুভেচ্ছা

    30/11/2020

    Read more...
  • Workshop for DU teachers held

    29/11/2020

    Read more...
  • সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকের-এর মৃত্যুতে ঢাবি উপাচার্যের শোক প্রকাশ

    27/11/2020

    Read more...
  • টিএসসি’র সাবেক পরিচালকের মৃত্যুতে ঢাবি উপাচার্যের শোক প্রকাশ

    24/11/2020

    Read more...
  • ঢাবি’র সাধারণ ভর্তি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

    23/11/2020

    Read more...
  • ঢাবি’র শতবর্ষে ACU-এর অভিনন্দন

    21/11/2020

    Read more...
  • ঢাবি-এ আন্তর্জাতিক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত

    20/11/2020

    Read more...